ব্রিটিশ কয়েনে মহাত্মা গান্ধী, সুপারিশ গেল রয়্যাল মিন্টে

uk-considering-a-coin-to-commemorate-mahatma-gandhi

ভারতীয় নোটের ওপর জাতির জনক মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধীর ছবি দেখতে আমরা সকলেই অভ্যস্ত। ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলন ও দেশ বিভাগ পরবর্তী হিংসার বাতাবরণ থামাতে তার অদ্বিতীয় ভূমিকা তাকে জাতির জনকের আসনে উন্নীত করেছে। সাম্প্রদায়িক হিংসা রুখতে তাঁর শান্তির মন্ত্রের প্রভাব পড়েছিল অনেক জায়গায়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কৃষ্ণ বর্ণের মানুষের হয়ে আন্দোলনে নেতৃত্বও দিয়েছিলেন তিনি। এবার তাঁকে সম্মান জানাতে নতুন কয়েনের প্রচলন করতে চলেছে একদা ভারতের শাসক ব্রিটিশরা।

জানা গেছে, ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটেনের অর্থমন্ত্রী ঋষি রয়্যাল মিন্ট অ্যাডভাইসারির কাছে এই সুপারিশ করেছেন। কমিটি বিষয়টিকে বিবেচনাধীন রেখেছে। ঋষি রয়্যাল মিন্ট অ্যাডভাইসারকে জানিয়েছে, ভারতের জাতির জনক সারা জীবন শান্তির বানী প্রচার করেছেন। তার জন্মদিন ২ অক্টোবর আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস হিসাবেও পালিত হয়।

অতি সম্প্রতি আমেরিকার রাস্তায় বর্ণ বিদ্বেষের শিকার হতে হয়েছিল কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডকে। সেই মৃত্যুর প্রতিবাদে গর্জে উঠেছিল গোটা বিশ্ব। স্লোগানে স্লোগানে মুখর বিশ্বে সেদিন ধ্বনিত হয়েছিল ‘আই কান্ট ব্রেথ’ বা ‘ আই অ্যাম জর্জ ফ্লয়েড’।

যদিও বিশ্বজুড়ে এই প্রথম এমন নিগ্রহের ঘটনা নয়। ইতিহাসের পাতায় বর্ণবিদ্বেষ থেকে নির্যাতন সব ক্ষেত্রেই প্রতিবাদের মুখ ‘গান্ধী’। তাই তাকে সম্মান জানানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মহাত্মা গান্ধী হরিজন আন্দোলন এর মধ্য দিয়ে শূদ্রদের অধিকার অর্জনের ক্ষেত্রে যেমন প্রাণ পুরুষ ছিলেন তেমনই তার উল্লেখ যোগ্য অবদান ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাধীনতা আন্দোলনে। নোয়াখালীর মত দাঙ্গা বিধ্বস্ত অঞ্চলেও তিনি গিয়েছিলেন শান্তির বানী প্রচারে।

Mon 3 Aug 2020 12:15 IST | ওয়েব ডেস্ক