ঈশ্বরের আধার কার্ড দেখান !

/uttar-pradesh-priest-asked-to-bring-gods-aadhaar-card-to-sell-wheat-grown-on-temple-land

ভারতবর্ষের জনগনের গুরুত্বপূর্ণ নথির লিস্টে আধারের গুরুত্ব এখন তুঙ্গে। সরকারি প্রকল্প হোক কিংবা দৈনন্দিন অনেক কাজেই প্রয়োজনীয় আধার কার্ড। কিন্তু ভগবানের আধার কার্ড! না সে কী করে সম্ভব! সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের ফসল মাণ্ডিতে এক মন্দিরের পুরোহিত ফসল বিক্রি করতে গিয়ে এমনই সমস্যার সম্মুখীন হলেন। আধিকারিরকরা তাঁর কাছ থেকে ফসল কেনার জন্য ভগবান রামচন্দ্র এবং মা সীতার আধার কার্ড দেখতে চাইলেন।  অবাক হলেও এমনই ঘটেছে। 

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের বান্দা জেলার আত্তারা তেহসিলের কুরহারা গ্রামের বড় রাম-সীতার  মন্দিরের অধীনে থাকা সাত হেক্টর জমিতে চাষবাস করেন মন্দিরেরই পুরোহিত মহন্ত রামকুমার দাস। তিনি ওই জমিতে চাষ করেছিলেন। চাষের ফসল  ১০০ কুইন্টাল গম স্থানীয় একটি মাণ্ডিতে বিক্রি করতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে রীতিমতো বিপাকে পড়েন,  আধিকারিকরা জানান, ওই ফসল বিক্রি করতে হলে যাঁর নামে জমির রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে, তাঁর আধার কার্ড প্রয়োজন। এদিকে, ভগবান রাম এবং মা সীতার আধার কার্ড কোথায় পাবেন? এই ভেবেই চিন্তায় পড়ে যান মহন্ত কুমার দাস। তাঁর  বারংবার অনুরোধেও কোনও লাভ হয়নি। এমনকী সাব ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট সৌরভ শুক্লার কাছে আবেদন জানিয়েও কোনও সুরাহা পাননি তিনি। শেষপর্যন্ত রাম এবং সীতার আধার কার্ড দেখাতে না পেরে অনেকটাই কম দামে ফসল বেচতে বাধ্য হন মন্দিরের পুরোহিত মহন্ত । 

এই খবর প্রসঙ্গে জিজ্ঞাসা করা হলে জেলা খাদ্য সরবরাহকারী আধিকারিক গোবিন্দ উপাধ্যায় বলেছেন, এটাই নিয়ম। মাণ্ডির আধিকারিকরা কখনওই যে ব্যক্তির নামে জমি রয়েছে, তাঁর আধার কার্ড ছাড়া মঠ এবং মন্দিরের জমিতে উৎপাদিত ফসল কিনতে পারবেন না। পাশাপাশি সাব ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেটের সাফাইও দিয়েছেন, ওই পুরোহিতের কাছ থেকে কখনওই ভগবানের আধার কার্ড চাওয়া হয়নি। তাঁকে কেবল নিয়মের ব্যাপারে অবগত করা হয়েছিল।

Thu 10 Jun 2021 18:14 IST | আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক