নিলামে ডাইনোসরের কঙ্কাল । ২৩৩ কোটি ২১ লক্ষ ২৬ হাজার ১৪০ টাকায় কিনলেন ভাগ্যবান খদ্দের ।

অকল্পনীয় দামে বিক্রি হল ডাইনোসরের কঙ্কাল । এ পর্যন্ত এটাই সর্বোচ্চ। নিলাম ডেকেছিল নিউ ইয়র্কের ক্রিস্টি । সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে,  নিলাম শুরু হওয়ার,  দুই মিনিটের মধ্যেই দর ওঠে ৬৬ কোটি ৫১ হাজার। পরের পনেরো মিনিটে তিন জন খদ্দের হাত তুললেন।  ততক্ষণে দর লাফাতে লাফাতে কল্পনার বাইরে চলে গেল । শেষ পর্যন্ত ২৩৩ কোটি ২১ লক্ষ ২৬ হাজার ১৪০ টাকায় ডাইনোসরের কঙ্কাল কিনলেন একজন ভাগ্যবান খদ্দের । কঙ্কালটির উচ্চতা ৪ মিটার, প্রস্থ ৪০ ফুট। খুলি আর ঘাড়ে আঘাতের চিহ্ন ।  তাহলে কি  অন্য কোনও প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে লড়াই করতে গিয়ে মারা যায় স্যান নামের ডাইনোসর ? তার নামটি এরকম কেন ? 

বিশ্বের উচ্চতম গাছ

 প্রকৃতির কিছু অসাধারণ রহস্য আছে, যেগুলো মানব-মস্তিষ্কের কাছে দুর্বোধ্য। জুরাসিক যুগে পৃথিবীর বুকে রাজত্ব চালিয়ে গিয়েছিল আকাশ ছোঁয়া কিছু প্রাণী। যেমন ব্র্যাকিওসরাস, জাইগান্টোসোরাস, কার্কারোডন্টোসরাস, টির্যা। তাদের পদধ্বনির অনুরণনে প্রায় ১৬ কোটি বছর ধরে কেঁপেছিল পৃথিবী। তবে আমাদের এই প্রিয় গ্রহে শুধু অতিকায় প্রাণী নয়, ছিল অতিকায় উদ্ভিদও। আজও এমন কিছু উদ্ভিদ টিকে আছে এই পৃথিবীতে, যাদের আকৃতি ও বয়স আমাদের বিস্ময় জাগায়।

হঠাৎই নাসার সতর্কতা!‌ ফল অজানা, ১ সেপ্টেম্বর পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে মারণ গ্রহাণু 

 দ্য জেট প্রপালশন ল্যাবরেটরি (জেপিএল) জানাচ্ছে, তাঁরা ইতিহাস ঘেঁটে দেখেছেন, এত কাছে কোনওদিনই কোনও গ্রহাণু আসেনি।

নাসার উন্নত ‘পারসিভিয়ারেন্স’ মঙ্গলে পাড়ি দিচ্ছে আজই

২৩ টি উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন ক্যামেরা ও মাইক্রোফোন নিয়ে গঠিত অত্যাধুনিক এই যানকে ঘিরে মহাকাশবিজ্ঞানীদের মধ্যে কৌতূহল তুঙ্গে ।  

রবিতে বিস্ময়: একসঙ্গে ৫ গ্রহের দেখা মিলবে আকাশে  

চাঁদের সঙ্গে টেলিস্কোপ ছাড়াই বিশ্ববাসি খালি চোখে দেখতে পাবে বুধ, শুক্র, মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনি গ্রহকে।

নাসার ক্যামেরায়, সূর্যের এক-দশকের ছবি

নাসার সোলার ডায়নামিক্স অবজারভেটরি বা সৌর পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র সূর্যের গতিপ্রকৃতি পর্যবেক্ষণ করে ৪২৫ মিলিয়ন অর্থাৎ সাড়ে ৪২ কোটি ছবি তুলেছে।

সরীসৃপের জীবাশ্মে দুনিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম ডিম

প্লেসিওসরাস, মোসাসরাসের ডিম। এটা উচ্চতায় ১১  এবং ও প্রস্থে ৭ ইঞ্চি।

সূর্যগ্রহণ আর করোনা সংক্রমণের মধ্যে রয়েছে গভীর যোগসূত্র: দাবি বিজ্ঞানীর

করোনাকে হারাতে বিজ্ঞানীদের রাতের ঘুম উড়েছে। বিশ্বের তাবড় তাবড় গবেষকরা ভ্যাকসিনের সন্ধানে শুরু করেছেন গবেষণা৷  প্রতিদিনই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। মানুষের মনে জাকিয়ে বসছে করোনা ভয়। কিন্তু চেন্নাইয়ের এক বিজ্ঞানীর দাবি যে করোনাকে নিয়ে প্যানিক না করে স্বাস্থ্যবিধি মানতেই হবে। সেইসঙ্গে তিনি আরও বলেছেন যে, করোনা ভাইরাসের সঙ্গে গভীর যোগ রয়েছে সূর্যগ্রহণের৷ 

১৫৭ দিন পর, মহাকাশে ফের রহস্যময় ‘রেডিও বার্স্ট’

মহাকাশ গবেষণার ব্যবহৃত শক্তিশালী টেলিস্কোপে ধরা পড়েছে সেই সঙ্কেত।

শুক্রবারেই আকাশে ২০২০-এর দ্বিতীয় চন্দ্রগ্রহণ

 দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই চন্দ্রগ্রহণের সাক্ষী থাকতে পারবে সাধারণ মানুষ। প্রায় ৩ ঘন্টা ১৮ মিনিট ধরে চলবে এই গ্রহণ।