'বন্দে ভারত'‌-এর ওপর আপত্তি ট্রাম্পের, জারি করল বিধিনিষেধ

us-restricts-special-flights-from-india

লকডাউনের সময় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকা ভারতীয়দের দেশে ফেরানোর জন্য বিশেষ বিমান চালাচ্ছিল অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। করোনার জেরে বিদেশে কাজ হারিয়েছেন বহু ভারতীয় নাগরিক। অনেকে বেড়াতে বা বিশেষ কাজে গিয়ে আটকে পড়েছেন। তাঁদের দেশে ফেরাতে বিশেষ বিমান পরিষেবা নাম ‘‌বন্দে ভারত’‌। সেই চার্টার বিমানের ওপর এবার নিষেধাজ্ঞা জারি করল আমেরিকা। 

তাদের অভিযোগ, এই পরিষেবা দুই দেশের মধ্যে হওয়া অসামারিক বিমান পরিবহন চুক্তি ভঙ্গ করছে।  এই ব্যবস্থা ‘‌অন্যায্য এবং বৈষম্যমূলক’‌ বলেও দাবি করা হয়েছে। মার্কিন পরিবহন দফতরের আরও অভিযোগ, এয়ার ইন্ডিয়া শুধু আটক নাগরিকদের উদ্ধার করছে, তা নয়, জনসাধারণকে টিকিট বিক্রিও করছে। এদিকে ভারত সরকার মার্কিন সংস্থার বিমানকে ভারতে ওঠানামার ছাড় দেয়নি। ফলে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ছে মার্কিন বিমান সংস্থাগুলো। 

‘‌আটকদের দেশে ফেরানোর নামে সুযোগ নিচ্ছে এয়ার ইন্ডিয়া’‌ বলেও আঙুল তুলল মার্কিন অসামরিক বিমান পরিবহন দফতর। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে এই নীতি চালু করা হবে।

এর পর চার্টার বিমান আমেরিকায় পাঠাতে হলে মার্কিন পরিবহন দফতরের কাছে আবেদন করতে হবে ভারতকে। তবে মার্কিন সংস্থার বিমান ওঠানামার ক্ষেত্রে ভারত নিষেধাজ্ঞা তুললে বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করবে আমেরিকা। 

কয়েক সপ্তাহ আগে চীনা বিমানের ওপরও নিষেধজ্ঞা জারি করে। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে বেজিং দেশে মার্কিন বিমান ওঠানামার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা চাপায়। একই পদক্ষেপ করে আমেরিকাও। ১৫ জুন শেষ পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয় মার্কিন সরকার। জানায় সপ্তাহে চারটি চীনা বিমান ওঠানামা করতে দেবে তারা। একই ছাড় দেয় চীনও।  সেইসব বিমান চলাচলের ওপরে বিধিনিষেধ আরোপ করল ট্রাম্প প্রশাসন। চিনের পর ভারতের উপর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করল হোয়াইট হাউস।
 

Tue 23 Jun 2020 17:56 IST | ওয়েব ডেস্ক