স্বস্তি, চিকিৎসা করাতে এসে লকডাউনে আটক বাংলাদেশের ১০৭৫ জন ফিরলেন স্বদেশে

bangladeshis-highcommisoner-sent-back-1065-bangladeshi-those-who-are- Stuck in covid-19 lockdown

পশ্চিমবঙ্গের, বিশেষ করে কলকাতায় ব্যবসার কাজে আর চিকিৎসা করতে এসে আটকে পড়া ১০৭৫ জন বাংলাদেশের নাগরিককে তাঁদের দেশে নিরাপদে ফেরত পাঠাল বাংলাদেশ উপাদূতাবাস। প্রথম পর্যায়ে পাঠানো হয় ১০০০ জনকে। দ্বিতীয় দফায়, ২২ মে হাইকমিশনের তদারকিতে ফিরে গেলেন ৭৫ জন। দুই বিশেষ বিমানে। এরা করোনার শিকার নন। নানারকম অসুখের চিকিৎসা করাতে পশ্চিমবাংলায় এসেছিলেন। কেউ কেউ দেশে ফেরার জন্য উপাদূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। বড় অংশের রোগী ও তাঁদের পরিজনকে খুঁজে বের করে বাংলাদেশে পাঠায় দূতাবাসের যৌথ টিম। টিমের নেতৃত্বে ছিলেন হাইকমিশনার তৌফিক হাসান, হেড অফ চ্যান্সারি জামাল হোসেন, প্রেস সচিব মুফাখ্খারুল ইসলাম সহ একদল পরিশ্রমী ও নিষ্ঠাবান উচ্চপদস্থ অফিসার। করোনার মৃত্যু, সংক্রমণ, আতঙ্ক ও গুজব অতিক্রম করে দেশের নানাপ্রান্তের আটকে পড়া বাসিন্দাদের ফেরৎ পাঠাতে গিয়ে এরা যে-সব ঝুঁকি নিয়েছেন, তা দৃষ্টান্ত  হয়ে রইল। 

দিল্লি, চেন্নাই ও অন্যান্য মহানগরে লকডাউন বন্দী হয়ে পড়েছিলেন বাংলাদেশের বহু নাগরিক। উদ্বেগ, আতঙ্কে দিন কাটছিল তাঁদের। বাংলাদেশ সরকার ভারতে লকডাউন বন্দীদের ফিরিয়ে নেবার তড়িঘড়ি ব্যবস্থা করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে অবিলম্ব পদক্ষেপ গ্রহণ করে বিদেশ ও স্বাস্থ্য মন্ত্রক। দিল্লি, চেন্নাই ও মুম্বাইয়ে আটকে পড়া নাগরিকদের ফেরত পাঠাতে নিয়মমাফিক ব্যবস্থা নেয় ঢাকার দিল্লি হাইকমিশন। প্রশস্ত হল স্বস্তি  আর শান্তি কল্যানের রাষ্ট্রীয় দায়িত্বশীলতা।

Sat 23 May 2020 11:41 IST | ওয়েব ডেস্ক