চিকেন বাটার মশলা

রবিবারে মাংস না হলে ছুটির আমেজটা হারিয়ে যায়। তবে মধ্যবিত্তের হেসেলে মাংস বলতে চিকেনই সম্বল। সেই চিকেনে একটু রাজকীয় স্বাদ আনতে বাটার আর মশলা সহযোগে বানিয়ে ফেলা যাক এই রেসিপি। বাড়ির সকলেই পরিচিত চিকেনে অন্যরকম স্বাদ পেয়ে খুশি, আর সকলের খুশিতে আপনিও সুখী। 

বাঙালির পছন্দের সিঙারা

সকালেপান্তা ভাতে হোক, কিংবা বিকেলের মুড়ি মাখায়, সন্ধ্যায় চায়ের আড্ডায় বাঙালির প্রথম পচ্ছন্দ সিঙারা। আবহাওয়া যেমনই হোক না কেনো সিঙারার প্রতি ভালোবাসা থাকে একই রকম। কিন্তু পছন্দের এই খাবার ঘরে তৈরি করা অনেকের কাছেই একটু সমস্যার। তবে একটু চেষ্টা করলে খুব সহজেই সিঙারা তৈরি করা যায় ।

ডিম মালাইকারি

চিংড়ি তো অনেক হল, কম সময়ে বানিয়ে ফেলুন নতুন এই পদ।

বিটের তৈরি লাল হালুয়া 

মাত্র ২০ থেকে ৩০ মিনিটের সহজেই বানিয়ে ফেলুন স্বাস্থ্যকর মিষ্টি খাবার। 

পনির পসন্দিতা

সাদা’মাটা পনিরও রঙিন সবজি আর মশালার সুঘ্রাণে জিভকে তৃপ্ত করবে। খুব কম সময়ে খুব সহজে পনির পসন্দিতা রেসিপি। 

জিরে চিকেন  

দূরত্ববিধি মানতে বাইরের রেস্তোরা নয় ঘরের হেসেলই সেরার সেরা । তবে একঘেয়েমি রান্নায় নতুনত্ব আনতে বানিয়ে ফেলুন একেবারে কম মশলার, ডিফারেন্ট টেস্টের এই পদটি । প্রিয়জনরা আপনার হাতে বানানোর চিকেনের প্রশংসা করবেই । জিরে চিকেন৷ খুব সহজে কমসময়ে বানিয়ে ফেলা যায়। 

উপকরণ: মুরগির মাংস – ৫০০ গ্রাম, সাদা জিরে- দেড় চা চামচ, দই – ১০০ গ্রাম, লেবুর রস – ২ বড় চামচ, পুদিনা পাতা কুচোনো – ১ চা চামচ, ধনে পাতা কুচোনো – বড় ৩ চামচ, কাঁচা লঙ্কা কুচোনো – ৪/৫টা, তেল – বড় ১ চামচ, নুন-চিনি-স্বাদমতো ।

উৎসবের সন্ধায় গরম চায়ের সঙ্গে ইলিশ ফিরিঙ্গি ফ্রাই 

পূর্ণিমা ঠাকুরের বিদেশি 'ফিশ ফ্রাই'-এর সাদূশ্যে বানানো ঠাকুরবাড়ির পচ্ছন্দের খাবার---ইলিশের ফিরিঙ্গি ফ্রাই!  উৎসবের মরসুমে প্রিয়জনদের কাছে বাহবা পেতে আজই হেসেলে বানিয়ে ফেলুন মুখোরোচক পদটি । সময় লাগে ১ ঘণ্টা ১০ মিনিটের মতো। 


উপকরণ— ৩ জনের জন্য বানাতে লাগবে ৬ টুকরো ইলিশ মাছ, ভাজার জন্য পরিমাণমতো সাদা তেল, ৪ টেবিল চামচ পেঁয়াজবাটা, ২ টেবিল চামচ আদাবাটা, ২ টেবিল চামচ রসুনবাটা, স্বাদমতো নুন, গোলমরিচগুঁড়ো, ১ চা চামচ কাঁচালঙ্কাবাটা, ২ কাপ ব্রেডক্রাম, আধ টেবিল চামচ ভিনিগার, ২ টেবিল চামচ ময়দা।

কড়াইশুটির উপমা 

সবুজ মটরশুটি পুষ্টিগুনে  সমৃদ্ধ । এতে ভিটামিন, কার্বোহাইড্রেট, ফ্যাট, প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, আয়রন আছে । খেতেও সুস্বাদু। সুজির সঙ্গে কড়াইশুটির মেলবন্ধনে তৈরি উপমা উপমা দেখতে আকর্ষণীয় খেতে বেশ।

উপকরণ— ১ কাপ সুজি, হাফ কাপ মটরশুটি, ১ পিঁয়াজ এবং কাঁচালঙ্কা কুচি স্বাদমতো । ২ কাপ গরম জল, ১ টেবিল চামচ তেল, কয়েকটা কারি পাতা, আদা আর কুচো করে কাটা ধনে পাতা ও নুন ।

ঘরের হেসেল সুস্বাদু ভেজ মোমো

বাড়ির খুদে থেকে বড়ো সকলের পচ্ছন্দ চাইনিজ খাবার। অতিমারির আবহে বাইরের খাবার অনেকেরই না পসন্দ। তা বলে স্বাদ বদল হবে না,  তা তো নয় । বিকেলের জলখাবারে তাই বাড়িতেই সহজেই বানিয়ে ফেলুন ভেজ মোমো । মোমো খেতেও সুস্বাদু আবার পুষ্টিগুণে ও ভরপুর । 

♦ ভেজ মোমো তৈরির উপকরণ- ১ কাপ ময়দা,  স্বাদমতো লবণ, ১/২ চা চামচ গোলমরিচ গুড়ো, ১/২ কাপ ব্রকলি কুচি, ১/২ কাপ মটরশুঁটি । প্রয়োজনে অনান্য সবজি ব্যবহার করা যেতে পারে ।