৫ অগাস্ট ভূমিপুজো ! প্রকাশিত হল আমন্ত্রণপত্র

ayodhya-ram-temple-event-invite-names-3-others-with-pm-narendra-modi_0.png (

চিত্র: প্রধানমন্ত্রী মোদি, আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত, উত্তরপ্রদেশের রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ও মহন্ত নিত্যগোপালদাস।

অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভূমিপুজোর আয়োজন করা হয়েছে ৫ অগাস্ট । প্রায় ৫০ জন ভিভিআইপির উপস্থিতিতে আয়োজিত হবে এই অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের  দু'দিন আগে প্রকাশিত হল আমন্ত্রণপত্র। গেরুয়া থিমের ওই আমন্ত্রণপত্রে প্রধানমন্ত্রী বাদে নাম রয়েছে আরও তিনজনের। করোনা সংকটের সময় ভূমিপূজনের অতিথি তালিকায় যে ভালমতো কাটছাঁট করা হয়েছে, তা আমন্ত্রণপত্র থেকেই স্পষ্ট বলে পর্যবেক্ষকদের ধারণা। ভূমিপূজনের সময় পাঁচজন থাকবেন মঞ্চে। প্রধানমন্ত্রী বাদে থাকবেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত, উত্তরপ্রদেশের রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ও মহন্ত নিত্যগোপালদাস। আমন্ত্রণপত্রে রয়েছে রামলালার ছবি। মোট দেড়শ জনকে পাঠানো হয়েছে আমন্ত্রণপত্র। প্রধানমন্ত্রী ৪০ কেজি ওজনের একটি রুপোর ইট দিয়ে রামমন্দির নির্মাণের প্রতীকি সূচনা করবেন। কয়েক দশক ধরে বিজেপি রামমন্দির নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে। সেই মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু হবে এতদিনে।
 
করোনা সংকটের সময়ে রামমন্দিরের ভূমিপূজনের জমায়েত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। তাঁর সাফ কথা, এই সময়ে পরিস্থিতির গুরুত্ব বিবেচনা করে ভিডিও কনফারেন্স তথা ভার্চুয়াল ভূমিপূজন হতে পারত। রাম জন্মভূমি আন্দোলনে শিবসেনারও ভূমিকা কম ছিল না। তাও স্মরণ করিয়ে দেন বালাসাহেব-পুত্র। উদ্ধবের বক্তব্য, লক্ষ লক্ষ রামভক্তদের কাছে এটা একটা বড় দিন। অনেক আবেগ জড়িয়ে রয়েছে। তাঁদের আটকে যদি বড় মাথারা সেখানে গিয়ে ভূমিপূজন করেন তাহলে তাঁদের ভাবাবেগে ধাক্কা লাগবে। তিনি আরও বলেন, 'রামমন্দির কোনও সাধারণ মন্দির নয়। এর পিছনে রয়েছে লম্বা ইতিহাস।'
কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিং-এর মতে  এখন রামমন্দির নির্মাণ শুরু করার পক্ষে অশুভ সময়। সেজন্যই রামমন্দিরের সঙ্গে যুক্ত অনেকে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। এই মন্তব্য করে আপাতত রামমন্দির নির্মাণের সূচনা অনুষ্ঠান স্থগিত রাখতে বললেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয়। মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় টুইটারে লিখেছেন, 'মোদীজি, আপনি ভূমিপূজা করে আর কতজনকে হাসপাতালে পাঠাতে চান?'

প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী লালকৃষ্ণ আডবানি ও মুরলীমনোহর জোশী সশরীরে নয় বরং ভার্চুয়ালি ভূমিপুজো চাক্ষুস করবেন। রাম জন্মভূমি ট্রাস্ট শনিবারই ফোন করে এই দুই প্রবীণ বিজেপি নেতাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে। 
রাম মন্দির আন্দোলনের সঙ্গে ওতোপ্রোতোভাবে জড়িয়ে ছিলেন বিজেপির প্রবীণ নেত্রী উমা ভারতী, সেই তিনিই  অযোধ্যায় ওই ঐতিহাসিক রাম মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের সময় উপস্থিত থাকবেন না। সোমবার টুইট করে তিনি জানালেন, করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে আগাম সতর্কতা হিসাবে তিনি বুধবার অযোধ্যায় আয়োজিত মূল অনুষ্ঠানটি এড়িয়ে যাবেন। তবে ভিড়ভাট্টা কমলে এবং প্রধানমন্ত্রী মোদি সহ বিশিষ্টরা চলে যাওয়ার পর তিনি মন্দির এলাকা পরিদর্শন করবেন। 
 

Mon 3 Aug 2020 14:06 IST | ওয়েব ডেস্ক