কবিতা►

painting-picasso-reclining-women-reading

চিত্র: পাবলো পিকাসো

সু ত পা  চ ক্র ব র্তী

 

বৃষ্টিদরজার পোকা 


আমার শরীরে এক আশ্চর্য পোকা  জন্মেছে

তার প্রতিটা পালকে সোনারং।
তার সারা গায়ে তোমার গন্ধ! সে আমারে এমন তীব্রভাবে
জড়িয়ে রয়েছে যে আমার ইদানীং
নিজেকে পাগল পাগল লাগছে।
তুমি আমার দুঠোঁটের মাঝখানে
জিভ ঢুকিয়েছ। আর দেখো,
ঠিক তখনই পোকাটা আমার
সমস্ত শরীর একেবারে
জানোয়ারের মতো পিষে ফেলতে চাইছে


তুমি আমার হয়েছ। এই দ্বন্দ্ব  আমি কোনোদিনও খুলে দেব না।
যত বড় চিকিৎসক ই হোক, আমার এই অসুখ সর্বনাশী। এই যে কুড়ি কুড়ি বচ্ছর আগের পটবীপাতার মিঠেকড়া গন্ধ  নাকে এসে ঘা দিচ্ছে, অবিকল তোমার বৃষ্টির মতো। ভিজছি। ভিজছি। কী তীব্র ভিজছি আমি! আমার সারা শরীরে এখন বৃষ্টির গন্ধ। আমার সারা শরীরে এখন তোমার গন্ধ

 ৩

যেন কত কত বচ্ছর কত কত বিচ্ছেদের পর আমাদের এই মিলন!
সারা আকাশ জুড়ে অজস্র জোছনা,বাতাস। আমি শুই, তুমি বাতাস করো। জন্মের বাতাস ঘিরে ধরে আমাদের। তোমার ঠোঁটে দীর্ঘ চুমু।যতটা জন্ম ততটা চুমু। জন্মের ভেতরে তুমি। জন্মের ভেতরে আমি। এসো বৃষ্টিস্নানে যাই 


 ৪

নিজেকে খুলে দেখো। আমি এখন তোমার ভেতরে ঢুকে গেছি। এই যে রোজ বৃষ্টিতে ভিজবে বলে বায়না কর সে আসলে আমি করি। তুমি এখন আমার। আমি তোমার দখলে। রাজা, একটিবার তছনছ করে দেখো সবকিছু। একটিবার খুলে দেখো বৃষ্টিদরজা


 ৫

আমার শরীরের পোকাটাকে  তুমি আছড়ে মেরেছ। আহ্ রাজা! আহ্! চোখের সামনে লালসর পরা দীঘল পুকুর। তুমি আমি ইতিউতি এ ওর ভেতরে নিমেষে ঢুকে যাচ্ছি। বেরোতে গিয়েই বদলে যাচ্ছ তুমি। বদলে যাচ্ছে শরীর! সারাগায়ে কী আশ্চর্য গন্ধ তোমার। ও রাজা, রাজা গো, মাটিতে আঁচল পেতেছি আমি, আঁজলা ভরে বৃষ্টি দাও এবার
 
         
 

Sun 25 Jul 2021 11:25 IST | সুতপা চক্রবর্তী